ক্রিকেট, খেলা

বিশ্ব একাদশ ও এশিয়া একাদশের ম্যাচ নিয়ে আশা ছাড়েনি বিসিবি

করোনার কারণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে স্থগিত হয়ে গেছে এশিয়া একাদশ বনাম বিশ্ব একাদশের মধ্যকার দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিল ‘মুজিব ১০০ টি-টোয়েন্টি কাপ ২০২০’ সিরিজটি বোধহয় বাতিলই হয়ে গেছে! কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান জানিয়েছেন, তারা এখনও ম্যাচটি আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে এশিয়া একাদশ বনাম বিশ্ব একাদশের মধ্যে ম্যাচ দুটি হওয়ার কথা ছিল  গত বছরের ২১ এবং ২২ মার্চ। ম্যাচটি আয়োজনে খেলোয়াড়ের তালিকাও প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলা হয়েছিল। শুধু তাই নয়, ম্যাচের আগে ১৮ মার্চ ভারতীয় কিংবদন্তি ও অস্কারজয়ী সংগীতজ্ঞ এআর রহমানকে নিয়ে কনসার্ট হওয়ার কথা ছিল।

বুধবার মিরপুরে জাতির জনকের ১০১তম জন্মদিনে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণকালে বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান বলেছেন, ‘যেহেতু জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। তাই আমরা একটা আশার আলো দেখছি, এটাকে আবার করা যেতে পারে। কিন্তু এর সঙ্গে আমাদের মাথায় রাখতে হবে এখন করোনা পরিস্থিতিও খুব খারাপের দিকে যাচ্ছে। তবে অবশ্যই আমাদের ইচ্ছে আছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই টুর্নামেন্টটা করার।’

স্বাগতিক বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও আফগানিস্তানের খেলোয়াড়দের নিয়ে এশিয়া একাদশের দল গঠন করার কথা শোনা যাচ্ছিল। ভারতীয় দল থেকে সম্ভাব্যদের মধ্যে ছিলেন লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি, শিখর ধাওয়ান, ঋষভ পান্ত, কুলদীপ যাদব ও মোহাম্মদ সামি। এছাড়া থিসারা পেরেরা, লাসিথ মালিঙ্গা, রশিদ খান, মোস্তাফিজুর রহমান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের নামও শোনা যাচ্ছিল।

বিপরীতে অবশিষ্ট বিশ্ব একাদশে থাকতে সম্ভাব্য হিসেবে নাম ছিল- কিয়েরন পোলার্ড, নিকোলাস পুরান, শেলডন কট্রেল, ক্রিস গেইল, ব্রেন্ডন টেলর, জনি বেয়ারস্টো, আদিল রশিদ, অ্যালেক্স হেলস, ফাফ দু প্লেসি, লুঙ্গি এনগিদি, অ্যান্ড্রু টাই, মিচেল ম্যাকক্লেনাগান।

কিন্তু এক বছর আগে ঠিক করে রাখা এই খেলোয়াড়দের পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। বোর্ড প্রধান এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘আসলে এই মুহূর্তে যে আলাপ-আলোচনা শুরু হয়েছে তা না। কিন্তু আমাদের তরফ থেকে একটা প্রস্তুতি নিয়ে যাচ্ছি। কাদের সাথে খেলা যায়, কী ধরনের প্লেয়ার পাওয়া যেতে পারে, কোন সময় থেকে খেলোয়াড়দের পাওয়া যেতে পারে- এই সমস্ত বিষয় চিন্তা করে আমরা একটা পরিকল্পনা করেছি। আমাদের পরিকল্পনা ছিল এ মাসের মাঝামাঝি ওদের সঙ্গে যোগাযোগ করা। তবে এখন যেভাবে করোনা বাড়ছে তাতে আমি শঙ্কিত। এইটুক আপনাদেরকে নিশ্চিত করতে পারি যে, যদি কোন সুযোগ পাই তাহলে আমরা এই খেলাটা আয়োজন করে ফেলবো।